ডিজিটাল মার্কেটিং টুলস দিয়ে ফ্রিতে মার্কেটিং করার পদ্বতি

by Nov 8, 2022Digital Marketing0 comments

ডিজিটাল মার্কেটিং টুলস বা সফটওয়্যার দিয়ে ফ্রিতে মার্কেটিং করার পদ্ধতি:
যেকোন ব্যবসা বা প্রতিষ্ঠানের মেরুদন্ড হলো মার্কেটিং, আপনি যদি আপনার টার্গেট অডিয়েন্সের কাছে প্রপার মার্কেটিং করতে পারেন সেই ক্ষেত্রে আপনার সেল বাড়বে নিশ্চিত।

মার্কেটিং মানেই আপনার পণ্য বা সেবা সম্পর্কে মানুষকে বেশি বেশি জানানো এবং কেনার জন্য আগ্রহী করে তোলা। সেইজন্য আপনার প্রয়োজনীয় ভালো কনটেন্ট ও মাকেটিং টুলস বা সফটওয়্যার।

বর্তমানে অনেক ব্যবসায়ী ফেসবুকের উপর নির্ভরশীল যা একদমই ভালো বিষয় না। যদি ফেসবুক কখনো ডাউন থাকে আপনার বিজনেস ও ডাউন থাকবে। তো এখন প্রশ্ন হলো আপনি মার্কেটিং কিভাবে করবেন? কোথায় মার্কেটিং করবেন? এই বিষয় নিয়েই আজকে আমরা আলোচনা করবো।

কি কি উপায়ে ডিজিটাল মার্কেটিং করা যায়?

ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেকগুলো প্ল্যাটফর্ম আছে, আপনার জন্য কোনটা ইফেক্টটিভ হবে সেটা এক্সপেরিমেন্ট করে আপনাকেই বাছাই করে নিতে হবে। যেহেুতু আজকে আমরা কিছু ডিজিটাল মার্কেটিং টুলস বা সফটওয়্যার নিয়ে ফ্রিতে কিভাবে মার্কেটিং করা যায় সেই কথা বলবো সেইক্ষেত্রে সব প্ল্যাটফর্ম নিয়ে কথা বলবো না।

ডিজিটাল মার্কেটিং টুলস বা সফটওয়্যার

ডিজিটাল মার্কেটিং টুলস দিয়ে ফ্রিতে মার্কেটিং করার পদ্বতি

ডিজিটাল মার্কেটিং এর কিছু টুলস বা সফটওয়্যারের নাম উল্লেখ করা হলো।

SMS Marketing Software

এসএমএস মার্কেটিং করার ক্ষেত্রে আপনি SMS Software ব্যবহার করতে পারেন। সেইক্ষেত্রে আপনি অপারেটর রেটেই এসএমএস মার্কেটিং করতে পারবেন। বর্তমান অপারেটর এসএমএস রেট ৩ থেকে ৪ পয়সা করে। এসএমএস গুলো আপনার সিম নাম্বার থেকেই যাবে। বর্তমান সিমগুলোতে ২০ টাকায় ৫০০ এসএমএস প্যাকেজ পাওয়া যায়।

আপনি যদি সার্ভার থেকে এসএমএস পাঠাতে চান সেইক্ষেত্রে ২০ থেকে ২৫ পয়সা করে কাটে বা তার চেয়ে কম বা বেশি। সেই ক্ষেত্রে একটি নাম্বার থেকে এসএমএস যাবে যেমন: 09xxxxxxxxx এমন বা অন্যকোন নাম্বারও থাকতে পারে। আর মাস্কিং এসএমএস এর ক্ষেত্রে আপনার প্রতিষ্ঠানের নাম থেকে এসএমএস যাবে। যা আপনার প্রতিষ্ঠানকে ব্র্যান্ডিং করতে সহায়তা করবে। তবে মাস্কিং এসএমএস এর ক্ষেত্রে প্রতি এসএমএস প্রাইস ৪৫ পয়সার উপরে পড়ে যা সাধারণত মার্কেটিং করার জন্য না। আপনার কাষ্টমারদের যেকোন নোটিফিকেশন বা শুভেচ্ছা পাঠানোর ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন।

WhatsApp Marketing Software

হোয়াটসঅ্যাপ মার্কেটিং সফটওয়্যার দিয়ে আপনি আপনার কাষ্টমারদের নাম্বাগুলোকে ফিল্টার করে তাদেরকে যেকোন প্রমোশনাল এসএমএস বা যেকোন নোটিফিকেশন পাঠাতে পারবেন। হোয়াটসঅ্যাপ মার্কেটিং করার ক্ষেত্রে কোন রকম টাকা খরচ হয় না ফ্রিতেই মার্কেটিং করা যায়। শুধু মাত্র সফটওয়্যারটা কিনে নিতে হয়।

ছবিতে ক্লিক করে হোয়াটসঅ্যাপ মার্কেটিং সফটওয়্যার কিভাবে কাজ করে বিস্তারিত দেখে নিন

হোয়াটসঅ্যাপ মার্কেটিং কেন করবেন?


🔹 মেসেজের জন্য কোন খরচ ছাড়াই সফটওয়ারের মাধ্যমে টার্গেটেড প্রমোশনাল মেসেজ পাঠানোর সুবিধা।

🔹 ক্যারেক্টার লিমিটেশন ছাড়াই যে কোন মিডিয়া ফাইল যেমন টেক্সট, ছবি, ভিডিও এবং যেকোন এটাচমেন্ট পাঠানোর সুবিধা।

🔹 ব্লাইন্ড মার্কেটিং না করে ইউজার/নাম্বার টার্গেট করে মার্কেটিং, প্রমোশন ও নোটিফিকেশন পাঠানোর সুবিধা।

🔹 নাম্বার ফিল্টার টুল ব্যবহার করে কোন নাম্বারগুলোতে হোয়াটসঅ্যাপ আছে তা ভেরিফাই করার সুবিধা।

🔹ক্যাটাগরি এবং লোকেশন অনুযায়ী নাম্বার কালেক্ট করার সুবিধা।

🔹 গ্রুপ গ্রেবার টুলের মাধ্যমে সকল হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে ইউজার নাম্বার সংগ্রহ করার সুবিধা।

🔹 হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ মার্কেটিং করার সুবিধা।

🔹 হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ লিংক কালেক্ট করতে পারবেন এবং সেগুলোতে মার্কেটিং করতে পারবেন।

🔹 Contact List, Chat List & Group Active Member আলাদা কালেক্ট করার সুবিধা।

🔹 অ্যান্টিব্লক টেকনোলজি তাই নাম্বার ব্লক হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই কম।

Email Marketing Software

ইমেইল মার্কেটিং হল ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি অংশ। ইমেইল মার্কেটিং করার মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যবসা, পন্য বা সংস্থা সম্পর্কে একত্রে অনেক মানুষকে জানাতে পারবেন।

ইমেইল মার্কেটিং করার ফলে  নির্ভরযোগ্য গ্রাহক পাবেন, যেকোন পন্য বিক্রয় করতে পারবেন, লিড জেনারেট করতে পারবেন এবং হ্যাঁ বিশ্বস্তা অর্জন করতে পারবেন যা একটি ব্যবসা বা সাইটের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ন।

ইমেইল মার্কেটিং কেন করবেন?

  • প্রথমত ইমেইল মার্কেটিং করতে আপনার ইন্টারনেট বিল ছাড়া অন্য কোন খরচ হবে না, যা একটি প্লাস পয়েন্ট।
  • খুবই কম সময়ে ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে ব্যবসার প্রচারনা হয়ে যায়, যা স্যোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে কম সময়ে সম্ভব না। কারন ইমেইল একজন গ্রাহকের সরাসরি ইনবক্সে যায়, যার ফলে প্রচারনাটা গ্রাহক দেখতে বাধ্য।
  • ইমেইল মার্কেটিং করে আপনার সাইটে কম সময়ে হাজার হাজার গ্রাহক আপনি আনতে পারবেন।
  • যেকোন ব্যবসার ক্ষেত্রে এটি উপযোগী একটি প্রচারনার মাধ্যম।
  • ইমেইল মার্কেটিং করার মাধ্যমে আপনার পণ্য বা সেবার ফটো ভিডিও বা ইদ্যাদি এটাচমেন্ট দেওয়া সম্ভব হয়। যাতে ক্রেতা বেশি আগ্রহী হয়।
  • ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে কম সময়ে ব্যবসা প্রসারিত করা সম্ভব।
  • ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনার বিক্রি বৃদ্ধি পাবে।
  • আপনার ওয়েবসাইটের/ফেসবুকের পেজের ভিজিটর প্রতিনিয়ত বাড়বে।
  • আপনার ফেসবুক পেজে নতুন লাইক বাড়বে।
  • বেশি পরিমাণে নতুন কাষ্টমারদের কল পাবেন।
  • এতোকিছু করতে পারবেন কোন প্রকার খরচ ছাড়াই শুধু ই-মেইল মার্কেটিং করার মাধ্যমে।

ইমেইল মার্কেটিং কিভাবে করতে হয় বিস্তারিত নিচের ভিডিওটি দেখে নিন

Just using link for redirect video
ভিডিও দেখতে ইমেজের উপর ক্লিক করুন
আরো রয়েছে লিংকডিন মার্কেটিং টেলিগ্রাম মার্কেটিং এই বিষয়গুলো নিয়ে অন্যকোন কনটেন্টে আলোচনা করা হবে ইনশাআল্লাহ।
Spread the love

0 Comments

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 5 =

Recent blog